ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা

0
10

একটা মানুষের ১৩ থেকে ১৯ বছরের সময় টা কে টিনএইজ বলে।যে সময় টা তে ছেলে মেয়েরা অনেক টা আবেগ প্রবণ হয়ে থাকে।আর এই আবেগ প্রবণ হওয়ায় অনেকেই বাজে পথ বেছে নেয়। ১৩ থেকে ১৯ বছর সময় টা টিনএইজার হলেও টিনএইজের প্রভাব টা ১৯ বছরের বেশি সময় থাকে।
আর এ সময় টা তে অনেক ছেলে মেয়ে নেশা,জোয়া খেলা,প্রেম ও সামাজিক বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত হয়ে পরে।
লকডাউন থাকায় সকল ছাত্র ছাত্ররী এখন তাদের বাড়িতে ফ্রি সময় কাটাচ্ছে। আর এ সময় কেউ প্রেমে জড়িত হচ্ছে বা কারও প্রেম ভেঙ্গে যাচ্ছে।আবার কেওবা দারিদ্র্যতার চরম হতাশায় ডুবে যাচ্ছে আবার কেউ প্রেমের বিরহে অনেকে আত্মহত্যার মত জঘন্য পথ বেচেঁ নিচ্ছে। বিগত ৫ মাসেরও বেশি সময় লকডাউন থাকার কারনে অনেক স্কুল,কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীরা আত্মহত্যা করেছে।আবার আত্মহত্যার আগে প্রিয় মানুষ কে উদ্দ্যেশ করে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস লিখে আত্ম করে এটা এখন এক প্রকার ট্রেন্ডে পরিনত হচ্ছে।

আত্মহত্যা কোন সমাধান হতে পারে না।এর জন্য প্রয়োজন আত্মহত্যা থেকে বেরিয়ে আসার পথ।এজন্য নিজে সচেতন হতে হবে কখনো আবেগ প্রবন হওয়া যাবে না,নিজের পরিবার ও সমাজের কথা ভাবতে হবে এবং বেশি মানসিক সমস্যা হলে ডাক্তারের কাছে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।তাহলেই আত্মহত্যা থেকে বেরিয়ে আসতে পারা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here